গার্ডিয়ানের বর্ষসেরা একাদশে সাকিব-মুশফিক

ক্রিকেটে বছরটা মোটামুটি ভালোই কেটেছে বাংলাদেশের। টেস্টে শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয় পেয়েছে টাইগাররা। ওয়ানডেতেও বছরটা ভালো কেটেছে সাকিব-তামিমদের। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে খেলেছে বাংলাদেশ। এই বছর আর কোনো ম্যাচ নেই টাইগারদের। এখন বছর শেষের হিসাবনিকাশের পালা। এই বছরের সেরা টেস্ট একাদশ নির্বাচন করেছে শীর্ষস্থানীয় ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ান। অলরাউন্ডার ক্যাটাগরিতে সেই একাদশে জায়গা পেয়েছেন সাকিব আল হাসান আর উইকেটরক্ষক হিসেবে রয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

দারুণভাবে ২০১৭ সালটা শুরু করেছিলেন সাকিব আল হাসন। নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটনে করেছিলেন ক্যারিয়ার-সেরা ২১৭ রান। সেই জুটিতে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন মুশফিকুর রহিমও। টেস্টে বাংলাদেশের শততম জয় ও প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর ক্ষেত্রেও ছিল এই দুই ক্রিকেটারের অসামান্য অবদান। এই বছর টেস্টে ৬৬৫ রান করেছেন সাকিব। বল হাতে নিয়েছেন ২৭ উইকেট।

সাকিব আল হাসানকে সেরা একাদশে নেওয়ার যুক্তি দিতে গিয়ে গার্ডিয়ানের যুক্ত হলো, বেন স্টোকস, রবীন্দ্র জাদেজা কিংবা রবিচন্দ্রন অশ্বিন নন এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।  ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদির মতো বোলারদের বিপক্ষে ২১৭ রান করেছেন তিনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়ের নায়ক তিনি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক জয়ের নায়কও সাকিব। ব্যাট হাতে ৮৪ ও বল হাতে দুই ইনিংসে ১০ উইকেট নেন এই অলরাউন্ডার।

গার্ডিয়ান তার সেরা একাদশে উইকেটরক্ষক হিসেবে রেখেছে মুশফিকুর রহিমকে। ওয়েলিংটনে সাকিবের সঙ্গে ১৫৯ রান করেছিলেন মুশি। এরপর ভারতের বিপক্ষেও করেন ১২৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয়েও দারুণ অবদান রয়েছে তাঁর। কেবল ব্যাট হাতেই নয়, নেতা হিসেবেও আলাদাভাবে নজর কেড়েছেন মুশফিক। উইকেটের পেছনে তাঁর চেয়ে সেরা কোনো ব্যাটসম্যান এই বছর ক্রিকেট বিশ্বে ছিলেন না। ৫৪.৭১ গড়ে এ বছর ৭৬৬ রান করেছেন সাবেক টাইগার অধিনায়ক। উইকেটে পেছনে তাঁর বিশ্বস্ত হাত নিয়েছে ১২টি ক্যাচ।

গার্ডিয়ানের বর্ষসেরা একাদশ : ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া), ডিন এলগার (দক্ষিণ আফ্রিকা), চেতেশ্বর পূজারা (ভারত), স্টিভেন স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া), বিরাট কোহলি (ভারত), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ), মুশফিকুর রহিম (বাংলাদেশ), মিচেল স্টার্ক (অস্ট্রেলিয়া), নাথান লায়ন (অস্ট্রেলিয়া), জেমস অ্যান্ডারসন (ইংল্যান্ড) ও কাগিসো রাবাদা (দক্ষিণ আফ্রিকা)।