নরসিংদীর পলাশে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর গলাটিপে হত্যার ঘটনায় আটক এক

নরসিংদীর পলাশে ৬ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর গলাটিপে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার দুপুরে পলাশ উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের ধনাইর চর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় রবিন মিয়া (১৪) নামে এক কিশোরকে আটক করেছে থানা পুলিশ। রবিন মিয়া ধনাইর চর গ্রামের কৃষক কাশেম মিয়ার ছেলে।
নিহত শিশু কাকলি একই গ্রামের ইজিবাইক চালক ওছমান মিয়ার মেয়ে এবং বক্তারপুর সরকারি বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ছাত্রী।


পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার দুপুরে বাড়ির পাশে খেলা করছিলো শিশুটি। এক পর্যায়ে তার সন্ধান না পাওয়ায় খোঁজাখুজির পর বাড়ির পাশের একটি নির্জনস্থানে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটির লাশ দেখতে পান এলাকাবাসী। খবর পেয়ে শিশুটির পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটির লাশ সনাক্ত করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এসময় হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে একই গ্রামের রবিন মিয়া নামে এক কিশোরকে আটক করে পুলিশ। পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে শিশুটিকে ধর্ষণের পর গলাটিপে হত্যা করা হয়েছে।