নরসিংদীর বাজারগুলোতে বাড়ছে শীতকালীন শাকসবজির সরবরাহ

মো: নাজমুল হক ॥

নরসিংদীর পাইকারী বাজারগুলোতে বাড়ছে শীতকালীন শাকসবজির সরবরাহ। সরবরাহ বাড়ার কারণে কমছে প্রায় সব ধরণের সবজির দাম। তবে এসব সবজির দাম কমার প্রভাব পড়ছে না রাজধানীর খুচরা বাজারগুলোতে। পাইকারী ক্রেতারা বলছেন, যানবাহনের ভাড়াসহ আনুসাঙ্গিক খরচ বাড়ার কারণে খুচরা বাজারে সবজির দাম বেশি হয়ে থাকে।

নরসিংদী জেলায় উৎপাদিত শাকসবজির খ্যাতি রয়েছে রাজধানী ঢাকাসহ দেশজুড়ে। এখানকার উৎপাদিত শাক-সবজির প্রায় ৭০ ভাগ-ই সরবরাহ করা হয় রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে, রপ্তানী হয় বিদেশেও।

চলতি শীতকালীন মৌসুমে জেলার ৯টি পাইকারী বাজারেই সরবরাহ বাড়ছে সীম, মুলা, বাধাকপি, ফুলকপি, লালশাক, পালংশাক, বেগুনসহ বিভিন্ন ধরণের শাকসবজির। প্রতি সপ্তাহেই জেলার বারৈচা, জঙ্গী শিবপুর, নারায়ণপুর, শিবপুর সদর, পালপাড়াসহ পাইকারী বাজারগুলোতে শীতকালীন শাকসবজির সরবরাহ বাড়ায় কমছে সবজির দাম। পুরোদমে সবজির সরবরাহ বাড়লে সব ধরণের সবজির দাম কমে আসবে। এখন প্রতি সপ্তাহেই সব ধরণের সবজি কেজি প্রতি ৫ থেকে ১৫ টাকা কমছে বলে জানান কৃষকরা।

এদিকে নরসিংদীর পাইকারী বাজারে সবজির দাম কমলেও ৬০ কিলোমিটার দূরত্বে রাজধানী ঢাকার খুচরা বাজারে গিয়ে সবজির দাম হয়ে যাচ্ছে দ্বিগুন। পাইকারী ক্রেতারা বলছেন, যানবাহন ভাড়াসহ মধ্যস্বত্তভোগীর কারণে সবজির দাম বেড়ে যাচ্ছে।

কৃষি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, চলতি মৌসুমে নরসিংদী জেলার ৬ উপজেলায় ৯ হাজার হেক্টর জমিতে শীতকালীন শাকসবজির আবাদ হয়েছে।