নরসিংদীর মাধবদীতে টেক্সটাইল শ্রমিকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ


নরসিংদীর মাধবদীতে টেক্সটাইল মিল শ্রমিকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (০৮ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১২টায় নুরালাপুর ইউনিয়নের আলগী কান্দাপাড়া এলাকা থেকে ইব্রাহিম খলিলউল্লাহ (৩২) নামের এ যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। সে মাধবদী পৌরসভার কোতালিচর এলাকার দিনমজুর মোহাম্মদ আলীর ছেলে। নিহত ইব্রাহিম ওই এলাকায় তার একটি প্রতিবন্ধি ৮ বছরের ছেলে ও স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় একটি টেক্সটাইল মিলের কাজ করতো বলে জানান তার পরিবার।


তার স্ত্রী সামসুন্নাহার জানান, প্রতিবন্ধি শিশুর চিকিৎসার জন্য মানুষের কাছ থেকে সাহায্য ও ধারদেনা করে অভাব অনটনের মধ্যে সংসার চলতো। তাদের ঋনের টাকা পরিশোধের জন্য স্বামীর কাজে তিনিও সহযোগিতা করতেন। ঘটনার রাতেও স্বামীকে খুঁজে না পেয়ে কারখানায় তিনিই কাজ করেন। সকালেও স্বামীর কোন সন্ধান না পেয়ে তিনি ৭টার দিকে তার প্রবাসী শ্বাশুরীর নতুন ক্রয় করা বাড়ীতে গিয়ে তার ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়। পরে আত্মীয় স্বজন ও স্থানীয়দের জানানো হলে ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।
নিহতের বাবা মোহাম্মদ আলী জানান, প্রায় তিন সপ্তাহ আগে ছেলের বৌয়ের সাথে কাজ করা নিয়ে ঝগড়া হয় ইব্রাহিমের। তখন বৌয়ের ভাই ইব্রাহিম কোন কাজকাম না করলে তাকে মাইর দেয়ার হুমকি দেয়। পরে ইব্রাহিমের মা আমেনা বেগম এর মিমাংশা করে দেন। তার মা আমেনা বেগম সৌদি আরবে থাকেন। কয়েক বছর আগে আলগী কান্দাপাড়া এলাকায় সাড়ে ছয় শতাংশ জমি কিনে একটি টিনের ঘর তুলে রেখেছেন কিন্তু এ বাড়ীতে কেউ থাকতোনা। এ ঘরেই ইব্রাহিমের ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়। এতো সাবধান করার পরেও ছেলেটাকে মৃত দেখতে হলো।


তার চাচা হযতর আলী জানান, লাশের কাছে গিয়ে চোখের পানি ধরে রাখতে পারছিলাম না। তিনি এ বিষয়ে প্রশাসনিক তদন্তের দাবি জানান।
নুরালাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব খাদেমুল ইসলাম ফয়সাল জানান, ঘটনাস্থলের জায়গাটি ফাঁসি নেয়ার জন্য যথেষ্ট না, তবে ময়নাতদন্তে সঠিক ঘটনা জানা যাবে।
মাধবদী থানার ওসি আবু তাহের দেওয়ান জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট দেখে বুঝা যাবে এ মৃত্যুর কারন।