ঘুষ ছাড়া মিলছে না মাতৃত্বকালীন ভাতা: তদন্তে মিলেছে সত্যতা

০৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:১৪ পিএম | আপডেট: ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০৮ পিএম


ঘুষ ছাড়া মিলছে না মাতৃত্বকালীন ভাতা: তদন্তে মিলেছে সত্যতা

পলাশ প্রতিনিধিঃ
ঘুষ ছাড়া মিলছে না নরসিংদীর পলাশ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয় থেকে সরকার নির্ধারিত মাতৃত্বকালীন ভাতা। এ নিয়ে গত ২ অক্টোবর “পলাশে ঘুষ ছাড়া মিলছে না মাতৃত্বকালীন ভাতা” শিরোনামে নরসিংদী টাইমস সহ বিভিন্ন পত্রিকায় ও অনলাইন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশের পর বিষয়টি নজরে আসে নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইনের।


পরে জেলা প্রশাসক পলাশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি তদন্ত করার নির্দেশ দিলে প্রাথমিক তদন্তে ঘুষ বাণিজ্যের সত্যতা পাওয়া যায়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পলাশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুমানা ইয়াসমিন।

ইউএনও জানান, জেলা প্রশাসকের নির্দেশে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ের অফিস সহকারী- হিসাব (কাম-কম্পিউটার) আব্দুল বাছেদ শেখের ঘুষ নেওয়ার ঘটনা তদন্ত করার জন্য উপজেলা সমবায় কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। তদন্তে আব্দুল বাছেদ শেখ কর্তৃক ঘুষ গ্রহণের অভিযোগের প্রাথমিক প্রমাণ পেয়েছে বলে জানান তদন্তকারী কর্মকর্তা ও উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরও জানান, ঘুষ নেওয়ার কারণে আব্দুল বাছেদ শেখের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


উল্লেখ, পলাশ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয় থেকে সরকার নির্ধারিত মাতৃত্বকালীন ভাতা বাবদ প্রতিটি নারীর কাছ থেকে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত ঘুষ নিচ্ছিল ওই কার্যালয়ের অফিস সহকারী-হিসাব (কাম-কম্পিউটার) আব্দুল বাছেদ শেখ।



এই বিভাগের আরও