শিবপুরে জামিনে এসে এক গৃহবধুর উপর ফের হামলার অভিযোগ

২২ জুন ২০১৯, ০৭:০১ পিএম | আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৫:৩৩ পিএম


শিবপুরে জামিনে এসে এক গৃহবধুর উপর ফের হামলার অভিযোগ

শিবপুর প্রতিনিধি:
নরসিংদীর শিবপুরে আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে এসে ফের সালমা বেগম নামে এক গৃহবধুর উপর হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার (২২ জুন) শিবপুর উপজেলার বাঘাব ইউনিয়নের বাঘাব গ্রামে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।
ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, গত ১৩ মে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে স্থানীয় আক্রশাল গ্রামের মৃত আ: ওহাবের ছেলে মেজবাহ উদ্দিন (৫৫), মৃত মোসলেহ উদ্দিনের ছেলে হারুন মিয়া (৫০), মৃত মোতালিবের ছেলে চাঁন মিয়া (৩৫) ও লাল মিয়া (২০) সহ আজ্ঞাতনামা আরো ১০/১২ জন লোক বাঘাব গ্রামের মামুন মিয়ার স্ত্রী সালমা বেগম (৪২) কে গামছা দিয়ে হাত পা বেঁধে মারধর করে স্বর্ণালংকার ও টাকাপয়সা লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ছালমার ছেলে রুমান ওফফে রুমেন বাদী হয়ে শিবপুর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। মামলা নং ২৮ তারিখ ১৩ মে ২০১৯ইং।
এই মামলায় প্রধান আসামী মৃত আ: ওহাবের ছেলে মেজবাহ উদ্দিন (৫৫) কে পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করে। পরে আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে মেজবা উদ্দিনের নেতৃত্বে ৬/৭ জন লোক সালমার বাড়িতে এসে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ দেয় এবং তাকে মারধর করে। এসময় প্রাণনাশসহ বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে চলে যায় তারা। এ ঘটনায় সালমা বাদী হয়ে শিবপুর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন। ডায়রি নং ৯২১, তারিখ ২২/০৬/২০১৯।
এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন, বাঘাব ইউপি সদস্য মো: মনির হোসেন খান। এ ব্যাপারে শিবপুর মডেল থানার অফিসার ইনজার্জ মোল্লা আজিজুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমি অভিযোগ পেয়েছি, যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।