করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের পদক্ষেপ জানিয়ে হাইকোর্টে প্রতিবেদন জমা

০৯ মার্চ ২০২০, ১২:২৬ পিএম | আপডেট: ৩১ মে ২০২০, ০১:০৯ পিএম


করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের পদক্ষেপ জানিয়ে হাইকোর্টে প্রতিবেদন জমা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সরকার দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে কী-কী পদক্ষেপ নিয়েছে তা জানিয়ে হাইকোর্টে প্রতিবেদন জমা দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। সোমবার (৯ই মার্চ) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে এই প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনের ওপর শুনানিতে হাইকোর্ট বেঞ্চ জানায়, করোনা প্রতিরোধের প্রস্তুতিতে ঘাটতি রয়েছে, এই ভাইরাস প্রতিরোধে দেশে পর্যাপ্ত প্রতিরোধক ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। তবে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই। কোভিড-১৯ প্রতিরোধে দেশের মাস্কগুলো কার্যকরী কিনা, সেটা নিশ্চিত করা দরকার বলেও জানায় আদালত। তবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পদক্ষেপ প্রশংসনীয় বলে জানায় হাইকোর্ট।

এছাড়া, মাস্কের দাম নিয়ে পেঁয়াজের মতো যেনো অস্থিরতা তৈরি করতে না পারে সে ব্যাপারে সরকারকে সর্তক থাকার পরামর্শও দিয়েছে হাইকোর্ট। মাস্ক মজুত করে কেউ যেন দাম বাড়াতে না পারে, তা তদারকিতে প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে হবে।

আদালত জানিয়েছে, করোনাভাইরাস নিয়ে কর্তৃপক্ষের বক্তব্য ইতিবাচক হতে হবে, সংখ্যা বার বার বলে জনগণকে আতংকিত করা যাবে না। গণমাধ্যমে ব্যাপক সচেতনতা তৈরির বিজ্ঞাপন দেয়ার নির্দেশও দেয় হাইকোর্ট।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো তিনজন করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)। রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করে তাদের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত করেছে আইইডিসিআর।

আক্রান্তদের মধ্যে একজন মহিলা এবং দুজন পুরুষ রয়েছেন। এদের মধ্যে দুজন ইতালি থেকে ভ্রমণ করে বাংলাদেশে এসেছেন। তাদের মধ্যে একজনের পরিবারের এক নারী সদস্য তাদের সংস্পর্শে এসে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়। তিনজন আক্রান্ত ছাড়া আরও দুইজনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে আইইডিসিআর।


বিভাগ : বাংলাদেশ