প্রিয়া সাহাদের নির্যাতিত বাংলাদেশের অবস্থান কোথায়...? ডোনাল্ড ট্রাম্প!

২০ জুলাই ২০১৯, ১২:১৮ পিএম | আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:০৬ পিএম


প্রিয়া সাহাদের নির্যাতিত বাংলাদেশের অবস্থান কোথায়...? ডোনাল্ড ট্রাম্প!

টাইমস্ ডেস্ক:

গত দুই দিনে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোচিত নারী প্রিয়া সাহা। সমগ্র বিশ্বে ধর্মীয় সম্প্রীতে বাংলাদেশের অবস্থান র্শীর্ষে হলেও প্রিয়া সাহার এমন মন্তব্যে বিব্রত গোটা দেশবাসী। এ কারণেই রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বাংলাদেশী স্মরনার্থী প্রিয়া সাহাকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।দেশের ভাবমূর্তি বিনষ্টের চেষ্টাকারী ওই নারীকে নিয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায়েও আলোচনা চলছে।

রোহিঙ্গাদের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা প্রিয়া সাহা বলছিলেন, আমি বাংলাদেশের শরণার্থী ক্যাম্পের একজন রোহিঙ্গা। শরণার্থীরা যত দ্রুত সম্ভব বাড়িতে ফিরতে চায়। এ ব্যাপারে কীভাবে আমাদের সাহায্য করবেন আপনি?  এমন প্রশ্নের উত্তরে ঘটলো ব্যতিক্রমী ঘটনা।নানা সময় বিভিন্ন কাজে সমালোচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশ্ন করে বসলেন বাংলাদেশটা যেন কোথায়! অবশ্য ট্রাম্পের উপদেষ্টা তাকে বলেন মিয়ানমারের ঠিক পাশেই যে দেশটি রয়েছে, সেটাই হল বাংলাদেশ। পরে অবশ্য তিনি বুঝতে পারেন।

বাংলাদেশের মত সম্প্রীতির দেশ নিয়ে মিথ্যা বক্তব্য দিয়ে বিচার প্রত্যাশী ওই নারীর পরিচয় জানতে চেয়েছেন অনেকেই।

খবর নিয়ে জানা গেছে, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির একজন সাংগঠনিক সম্পাদক তিনি। এছাড়াও তিনি বেসরকারি সংস্থা ‘শারি’র নির্বাহী পরিচালক পদও রয়েছে তার। পিরোজপুর জেলার চরবানিরীর মাটিভাঙ্গা নাজিরপুরে তার গ্রাম। ‘মহিলা ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদকও ছিলেন। বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জন্য ২০১৮ সালে সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়। ‘শারি’ এনিজিও সংস্থার মাধ্যমে প্রিয়া নিজ এলাকার দলিত সম্প্রদায়কে নিয়ে কাজ করেন। আর সেই সুবাধেই সেখানে তার উপস্থিতি অতপর বাংলাদেশ নিয়ে বিরুপ মন্তব্য।


বিভাগ : বাংলাদেশ