আজ জাতীয় ভ্যাট দিবস

১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:২৭ পিএম | আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০২০, ১১:১২ এএম


আজ জাতীয় ভ্যাট দিবস

নিজস্ব প্রতিবেদক:

১০ ডিসেম্বর জাতীয় মূল্য সংযোজন কর (মূসক বা ভ্যাট) দিবস। এ দিবসের পাশাপাশি ১০ থেকে ১৬ ডিসেম্বর ভ্যাট সপ্তাহ উদযাপন করবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। ভ্যাট দেয়ার বিষয়ে জনসাধারণকে অধিক সচেতন করতেই প্রতিবছর উদযাপিত হচ্ছে জাতীয় ভ্যাট বা মূসক দিবস। ভ‌্যাট দিবসের স্লোগান ‘ভ্যাট দিচ্ছে জনগণ, দেশের হচ্ছে উন্নয়ন’। ১০ ডিসেম্বর চতুর্থবারের মতো ভ‌্যাট দিবস উদযাপিত হচ্ছে। এর আগে প্রতি বছর ১০ জুলাই জাতীয় ভ্যাট দিবস উদযাপিত হতো।

বাংলাদেশে ১৯৯১ সালে মূসক প্রবর্তিত হওয়ার পর এ বিষয়ে অধিক সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য ২০১১ সাল থেকে ভ‌্যাট দিবস ও সপ্তাহ উদযাপন করা হচ্ছে। সর্বশেষ চলতি অর্থবছরে নতুন ভ্যাট আইন কার্যকর হওয়ার পর থেকে দিবসটির গুরুত্ব আরো বৃদ্ধি পেয়েছে।

ভ্যাট দিবস ও ভ্যাট সপ্তাহ উপলক্ষে এনবিআর বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এ বিষয়ে এনবিআরের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘ভ্যাট আদায়ে ছাড় দেয়া হয়েছে। ভ্যাট আদায়ে প্রাথমিক পর্যায়ে অনুরোধ করা হবে, পরে আইন প্রয়োগ করা হবে। তবে সে সময় ভ্যাট আদায়ের ক্ষেত্রে কোনো দিক থেকে যেন হয়রানির কথা না ওঠে। অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধন ১ লাখ ১২ হাজার ছাড়িয়েছে। রিটার্ন জমা পড়েছে ১ লাখ ৫ হাজার। রেজিস্ট্রেশন প্রতিনিয়ত বাড়ছে। ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা করে ভ্যাটের হার নির্ধারণ করা হয়েছে। রড, স্টিলসহ কয়েকটি পণ্যের ক্ষেত্রে মানুষের কথা চিন্তা করে এবং ভ্যাটের বিষয়ে ভীতি যেন তৈরি না হয়, সেজন্য ভ্যাটের হার ফিক্সড করে দেয়া হয়েছে। এত কিছুর পরও যদি ভ্যাট আদায়ে প্রবৃদ্ধি না হয় তাহলে তা হবে খুবই দুঃখজনক। ব্যবসায়ীদের যথেষ্ট সুযোগ দেয়া হয়েছে। ভ্যাট আদায়ে জুলাই-আগস্টে নেগেটিভ প্রবৃদ্ধি থাকলেও সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে তা ঘুরে দাঁড়িয়েছে।

ভ‌্যাট দিবস উপলক্ষে সকালে এনবিআরের উদ্যোগে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়েছে। র‌্যালিটি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সামনে শুরু হয়ে রাজমনি সিনেমা হলের সামনে দিয়ে কাকরাইল মসজিদ ও মৎস্য ভবন হয়ে দুদকের সামনে দিয়ে রাজস্ব ভবনে এসে শেষ হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এর পরপরই রচনা প্রতিযোগিতা হবে। পরে বিজয়ীদের পুরস্কার দেবে এনবিআর। বিকেলে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সর্বোচ্চ ভ্যাট প্রদানকারীদের সম্মাননা প্রদান করা হবে। সেখানে প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী ছাড়াও পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, প্রধানমন্ত্রীর অর্থবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমানের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

সর্বোচ্চ পরিমাণ ভ্যাট পরিশোধ করে টানা চতুর্থবারের মতো জেলা পর্যায়ে সেরা ভ্যাটদাতা নির্বাচিত হয়েছে দেশের শীর্ষ ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স, হোম অ্যাপ্লায়েন্স ও টেলিকমিউনিকেশন পণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। এবার জেলা পর্যায়ের ব্যবসা ক্যাটাগরিতে দুটি ওয়ালটন প্লাজা সেরা ভ্যাটদাতা নির্বাচিত হয়েছে।

২০১৮ সালে ২৫টি ওয়ালটন প্লাজা সেরা ভ্যাটদাতা নির্বাচিত হয়েছিল। অন্যদিকে, ২০১৭ সালে ২৭ জেলার ওয়ালটন প্লাজা সেরা ভ্যাটদাতা হিসেবে পুরস্কৃত হয়। ২০১৬ সালে জেলা পর্যায়ে সর্বোচ্চ ২৯টি ওয়ালটন প্লাজা সেরা ভ্যাটদাতা নির্বাচিত হয়েছিল।
২০১৭-১৮ অর্থবছরে উৎপাদন, ব্যবসায় ও সেবা ক্যাটাগরিতে জাতীয় পর্যায়ে ৯টি প্রতিষ্ঠান ও জেলা পর্যায়ে ১৩৫টি প্রতিষ্ঠানকে সেরা ভ্যাটদাতা নির্বাচন করা হয়।


বিভাগ : অর্থনীতি