থিয়েটারে পা রাখার গল্প

২৭ মার্চ ২০২৩, ০৫:৩৪ পিএম | আপডেট: ২৩ মে ২০২৪, ০২:৪২ এএম


থিয়েটারে পা রাখার গল্প

বিনোদন ডেস্ক:
আজ ২৭ মার্চ । বিশ্ব থিয়েটার দিবস। আন্তর্জাতিক থিয়েটার ইন্সটিটিউট (আইটিই) কর্তৃক ১৯৬১ সালে বিশ্ব থিয়েটার দিবসের প্রবর্তন হয়। এরপর থেকে প্রতিবছর ২৭ মার্চ আইটিই কেন্দ্রসমূহ এবং আন্তর্জাতিক থিয়েটার কমিটি দিবসটি পালন করে। সময়ের ধারনায় থিয়েটার দিবস শুধু দিবসে সীমাবদ্ধ না থেকে ছড়িয়েছে মফস্বলের মহড়া কক্ষ অব্দি । নরসিংদীর স্থানীয় একটি নাট্যদলের ৪ জন নাট্যকর্মী লিখেছেন থিয়েটার ও নিজেকে নিয়ে:

 

# আজীবন থিয়েটারের সাথে নিজেকে যুক্ত রাখতে চাই :
থিয়েটারের প্রতি একটা আগ্রহ ছিলো সেই ছোটকাল থেকেই যখন বিটিভিতে মঞ্চ নাটক দেখতাম। বছর চার হবে জানতে পারি ,আমার জেলায় একদল যুবক মুক্তধারা নামে একটা নাট্যদলের সাথে কাজ করে।তারপর যা হ‌ওয়ার তাই হলো।

এই তো সেদিন, মাস ৫ হবে "পাইচো চোরার কিচ্ছা" লোকনাট্যের মাধ্যমে মুক্তধারা নাট্যদলে পা রাখি। নাটকে কখনো রানীমা, কখনো পাইচোর মাসি কিংবা বুড়ি হিসেবে নিজেকে উপস্থাপন করি। তাছাড়াও "ঐ আসে "নাটকে সাংবাদিক চরিত্রের মাধ্যমে নিজেকে তুলে ধরি। থিয়েটার আমার কাছে আবেগ আর অনুভূতির একটা নাম। মঞ্চে অভিনয় করার মাধ্যমে আমরা সত্যতা প্রকাশ, সামাজিক কুসংস্কার প্রতিরোধ, অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার চেষ্টা করি। নাট্যকর্মী হিসেবে নিজেকে অন্যের কাছে তুলে ধরতে গর্ববোধ হয়। ভালোবাসি থিয়েটার, ভালোবাসি মঞ্চের মানুষগুলোকে। আজীবন এই থিয়েটারের সাথে নিজেকে যুক্ত রাখতে চাই। (কাকলী বর্মন , নাট্যকর্মী,মুক্তধারা নাট্য সম্প্রদায়)

 

# প্রথম যেদিন মঞ্চে উঠি সেদিনের অনুভূতি প্রকাশ করা অসম্ভব:
আমার নাট্যকর্মী হয়ে উঠার গল্প এক বছরের। এই এক বছরে আমি তিনটি মঞ্চনাটকে কাজ করেছি। তিনটি নাটকের চরিত্রও ছিলো তিন রকমের। প্রথম যেদিন মঞ্চে উঠি সেদিনের অনুভূতি প্রকাশ করা অসম্ভব। আমার করা দ্বিতীয় নাটক "পাইচো চোরার কিচ্ছা " এর মহেশ্বরী কন্যার চরিত্র পাই আমি। এমন চরিত্রে কাজ করা আমার ছোটবেলার শখ ছিলো। এই নাটক শেষে বাহবা এর পাশাপাশি মহেশ্বরী কন্যা নামটিও যেন আমার হয়ে গিয়েছিল। নাট্যকর্মী হিসেবে আমার ভালো লাগার বিষয়টি হলো মঞ্চে উঠার সময় উৎসাহ এবং মঞ্চ থেকে নামার পর পরিচিত ও অপরিচিত দর্শকদের করা প্রসংসা। ভালোবাসি নাটক আর ভালোবেসে কাজ করে যাবো আগামী পর্যন্ত। (শতাব্দী ভৌমিক , নাট্যকর্মী ,মুক্তধারা নাট্য সম্প্রদায়)

 

# পৃথিবীকে দেখার নতুন এক জানালা থিয়েটার:

অন্তর্মুখী স্বভাবের কারণে কী না জানি মঞ্চে কিংবা অপরিচিত জনসমাগমে কথা বলায় জড়তা ছিলো আমার। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনে কিছুদিন কাজ করার সুবাদে সেই জড়তা কিছুটা হলেও কেটে গেছে। কিন্তু মঞ্চে দাঁড়িয়ে অভিনয় করবো এটা স্বপ্নেও কোনদিন ভাবছি বলে মনে পড়ে না। যা স্বপ্নে ভাবি নাই, তাই আজ বাস্তব হয়েছে মুক্তধারা নাট্য সম্প্রদায়ের কল্যানে।

থিয়েটারের সাথে পথচলা অল্প কিছুদিনের। কিন্তু তা স্বত্বেও থিয়েটারের সাথে যুক্ত হয়ে আমার কাছে মনে হচ্ছে পৃথিবীকে দেখার একটা নতুন জানালা আমার সামনে উন্মোচিত হয়েছে। আমি নিজেকে নতুন করে আবিষ্কার করেছি। নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। নিজের প্রতি এই আত্মবিশ্বাস ধরে রাখার জন্য এবং নতুন জানালা দিয়ে পৃথিবীকে আরও জানার জন্য হলেও আমি থিয়েটারের সাথে যুক্ত থাকতে চাই। (প্রিতম দে , নাট্যকর্মী,মুক্তধারা নাট্য সম্প্রদায়)

 

# আমি মঞ্চ ভালোবাসি:
থিয়েটারের মঞ্চে আমি প্রথম পা রেখেছিলাম হিজরা ( তৃতীয় লিঙ্গ ) চরিত্রে । সময় ও গল্পের পরিবর্তনে কখনো মাইক মাস্টার, মাতব্বর , বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক , বখাটে ও মাতাল কমলাকান্ত সহ বহু চরিত্রের পোষাক পরেছি। আমি মঞ্চ ভালোবাসি, সকলকে বিশ্ব থিয়েটার দিবসের শুভেচ্ছা । (রাকিবুল ইসলাম,নাট্যকর্মী,মুক্তধারা নাট্য সম্প্রদায়)


বিভাগ : বিনোদন


এই বিভাগের আরও