মনোহরদীতে বাসা থেকে মাদ্রাসা শিক্ষকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার

০৩ নভেম্বর ২০১৯, ১২:০১ পিএম | আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:৩৯ পিএম


মনোহরদীতে বাসা থেকে মাদ্রাসা শিক্ষকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক:
নরসিংদীর মনোহরদীতে ভাড়া বাসা থেকে তোফাজ্জল হোসেন (৩০) নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (২ নভেম্বর) দিবাগত রাত ১টায় মনোহরদী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন ভাড়া বাসা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।
মনোহরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


নিহত তোফাজ্জল উপজেলার একদুয়ারিয়া ইউনিয়নের দরবেশের কান্দা হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্ত্রী, স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালের সেবিকা আয়েশা আক্তার হ্যাপি (৩৫) কে আটক করেছে পুলিশ। তার বাড়ি পাশের গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলার আটাশিয়া খিরাটি গ্রামে।

পুলিশ জানায়, নেত্রকোণা জেলার বাসিন্দা তোফাজ্জল হোসেন নরসিংদীর মনোহরদীর দরবেশের কান্দা মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করতেন। পরে তিনি টিউশনি শুরু করেন। স্বামীর মৃত্যুর পর ১০ বছরের ছেলে সামিকে কোরআন শিক্ষা দেয়ার সুবাদে শিক্ষক তোফাজ্জল হোসেন এর সঙ্গে পরিচয় হয় স্থানীয় হাসপাতালের সেবিকা আয়েশা আক্তার হ্যাপির। পরে তারা বিয়ে করে ছেলেসহ মনোহরদী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন একটি ভাড়া বাসায় বসবাস শুরু করেন।


স্ত্রী আয়েশা আক্তারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বাথরুমে ঢুকার পর দীর্ঘ সময় পরও বের হচ্ছিলেন না স্বামী তোফাজ্জল হোসেন। পরে স্ত্রী বাথরুমের দরজা ধাক্কা দিয়ে খুলে স্বামী তোফাজ্জল হোসেনকে গলাকাটা অবস্থায় ছটফট করতে দেখেন। এসময় তার চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন এসে ঘটনাস্থলেই তোফাজ্জলের মরদেহ দেখতে পান।


মনোহরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার ও স্ত্রী আয়েশাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।