নরসিংদী সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামী লীগে বিবাদ

২২ মার্চ ২০১৯, ১০:০২ পিএম | আপডেট: ২২ আগস্ট ২০১৯, ১১:২৫ এএম


নরসিংদী সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামী লীগে বিবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥


আসন্ন নরসিংদী সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে প্রকাশ্য বিবাদে জড়িয়ে পড়েছেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণায় অংশ নেয়ায় ছাত্রলীগের বহিষ্কারের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আফতাব উদ্দিন ভূঁইয়া।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আনোয়ার হোসেনের আনারস প্রতীকের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ায় নূরালাপুর, কাঠালিয়া, মহিষাশুড়া, চরদিঘলদী ও পাইকারচর ইউনিয়নের ছাত্রলীগ কমিটি বিলুপ্ত করেছে মাধবদী থানা ছাত্রলীগ। সভাপতি মোঃ মাসুদ রানা ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ দেলোয়ার হোসাইন শাহীন স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিকে দলীয় নির্দেশ অমান্য ও শৃঙ্খলাভঙ্গের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়।

এর দুইদিন পর (২২ মার্চ) সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আফতাব উদ্দিন ভূঁইয়া তার ফেসবুক একাউন্টে নিজের মতামত তুলে ধরেন। তার মতে, ‘এটি করে দলের ১২টা বাজানো হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘বহিস্কারের প্রতিযোগিতা বন্ধ করুন। বলে-কয়ে পিঠে হাত দিয়ে নৌকায় উঠান।’ আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের যেসব নেতা-কর্মী বহিষ্কারের বিষয়টিকে সমর্থন করে বা না বুঝে ফেসবুকে প্রচার প্রচারণা করছেন তারাও বহিষ্কার হওয়ার সমান অপরাধ করেছেন বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সংশ্লিষ্টদের সতর্ক করে তিনি আরও বলেন, এখন সাবধান না হলে সামনে এর জন্য কঠিন মাশুল দিতে হতে পারে। ভাল থাকবেন সবাই। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু”।

এর আগে প্রার্থীতা নির্বাচন নিয়ে নানা নাটকীয়তার জন্ম দেন জেলা আওয়ামী লীগ ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। তৃতীয়ধাপের নির্বাচনে সদর উপজেলার জন্য, তৃণমূলের সিদ্ধান্তকে উপেক্ষা করে তিনজনের নাম না পাঠিয়ে এককভাবে সফর আলী ভূঁইয়ার নাম পাঠানো হয় এবং এর মাধ্যমে তৃণমূলের সাথে প্রতারণা করা হয় বলে মন্তব্য করেছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফতাব উদ্দিন ভূঁইয়া ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন। কেন্দ্র থেকে পরবর্তীতে আফতাব উদ্দিন ভূঁইয়াকে দলীয় প্রার্থী করা হয়। এই সিদ্ধান্ত মানতে পারেননি সদর আওয়ামী লীগের সভাপতি সফর আলী ভূ্ইঁয়া। তিনি বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপন মারফত দলের প্রতি নিজের অবস্থান তুলে ধরেন। বিস্ময়করভাবে কোন কারণ উল্লেখ না করে সদর উপজেলার নির্বাচন পিছিয়ে দিয়ে পুনঃতফসিল করা হয় এবং প্রার্থীতা পাল্টিয়ে সফর আলী ভূঁইয়াকে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মনোনীত করা হয়। এই সিদ্ধান্তের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করলেও নৌকার বিরুদ্ধে নির্বাচন না করার সিদ্ধান্ত নেন এর আগে দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্ত আফতাব উদ্দিন ভূঁইয়া। কিন্তু মাঠে থেকে যান আনোয়ার হোসেন।

আগামী ৩১ মার্চ চতুর্থ ধাপে সদর উপজেলার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।



এই বিভাগের আরও