পলাশের গজারিয়া ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীর ওপর হামলার অভিযোগ

০৯ জুন ২০২১, ০৭:২৭ পিএম | আপডেট: ০৩ আগস্ট ২০২১, ০৭:৫৭ এএম


পলাশের গজারিয়া ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীর ওপর হামলার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নরসিংদীর পলাশ উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে কর্মীদের ওপর হামলা ও প্রচারণায় বাধা প্রদানের অভিযোগ করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. জাকির হোসেন চৌধুরী (চশমা প্রতীক)। বুধবার (৯ জুন) বিকালে পিতাম্বরদীস্থ নিজ বাড়িতে এক সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী বদরুজ্জামান ভূইয়ার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. জাকির হোসেন চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, গত মঙ্গলবার (৮ জুন) সন্ধ্যায় ১ নং রামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে চশমা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছিল কর্মীরা। এসময় নৌকা প্রতীকের সমর্থনকারী কর্মীরা মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় চশমা প্রতীকের পক্ষের প্রচারণায় বাধা প্রদান করে এবং নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বদরুজ্জামান ভূইয়া নিজে ও তার সহযোগীরা গালিগালাজসহ আমার কর্মীদের রাম দা ও লাঠিসোঠা দিয়ে মারধর করে। এক পর্যায়ে ইজিবাইক ভাংচুর করে। এতে আহত কর্মী আবু সালেক ভুইয়াকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এসময় তিনি আরও বলেন, আগামী ২১ জুন অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনকে ঘিরে ক্ষমতা ও পেশি শক্তি প্রয়োগ করে ইউনিয়নজুড়ে আতংক সৃষ্টি করছেন আ.লীগ দলীয় প্রার্থী বদরুজ্জামান ভূইয়া। পাশের উপজেলা শিবপুর ও সদর উপজেলা থেকে প্রতিদিন বহিরাগত সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে এসে মোটরসাইকেল মহড়া দিয়ে নির্বাচনী পরিবেশকে অস্থিতিশীল করছে। এতে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ছে এবং সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে আশংকা তৈরি হচ্ছে। এসব বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

যোগাযোগ করা হলে আ.লীগ দলীয় প্রার্থী বদরুজ্জামান ভূইয়া অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, আমি ও আমার কর্মী সমর্থকরা ১০/১২ টি হোন্ডা নিয়ে রামপুরে প্রচারণা শেষে ফেরার সময় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা হামলা করেছেন। এতে আমার দুই কর্মী আহত হয়েছেন। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।  

পলাশ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোসা. জোবাইদা খাতুন বলেন, এসব বিষয়ে লিখিত বা মৌখিক কোন অভিযোগ এখনও পর্যন্ত পাইনি।