রায়পুরায় অপহরণের ২৫ দিন পর অটোচালক উদ্ধার, ৬ জন গ্রেপ্তার

২০ জুলাই ২০২১, ০৮:৪৯ পিএম | আপডেট: ২৩ জুলাই ২০২১, ০৮:২১ পিএম


রায়পুরায় অপহরণের ২৫ দিন পর অটোচালক উদ্ধার, ৬ জন গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নরসিংদীর রায়পুরা থেকে অপহরণের ২৫ দিন পর ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার চালক এক কিশোরকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় অপহরণের সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। মঙ্গলবার সকালে এই ঘটনায় ৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে আসামী করে রায়পুরা থানায় একটি মামলা হয়েছে।

উদ্ধার হওয়া অটোরিকশার চালকের নাম মোঃ সাগর মিয়া (১৬)। সে উত্তর মির্জানগর ইউনিয়নের বাহেরচর গ্রামের রবি মিয়ার ছেলে।

এর আগে গত ২৫ জুন বিকেলে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাসহ রায়পুরা পৌর এলাকা থেকে মোঃ সাগর মিয়াকে অপহরণ করা হয়। সোমবার (১৯ জুলাই) বিকেলে রাজধানী ঢাকার উত্তরখান থানার মাস্টারবাড়ি এলাকার একটি বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। গত ২৫ দিন ওই বাড়িটিতে তাকে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছিল।

গ্রেপ্তার ৬ জন হলো, জজ মিয়া, শুভ মিয়া, মোঃ আশিক, তরিকুল ইসলাম, ওমর ফারুক, ইমরান মিয়া। তাদের সবারই বয়স ১৬ থেকে ১৯ এর মধ্যে। প্রথম চারজনের বাড়ি রায়পুরার উত্তর মির্জানগর ইউনিয়নের বাহেরচর গ্রামে। অন্যদিকে ওমর ফারুকের বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে আর ইমরানের বাড়ি ময়মনসিংহের নান্দাইলে।

উদ্ধার হওয়া কিশোরের পরিবার জানায়, গত ২৫ জুন দুপুরে তার ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা নিয়ে উপার্জনের উদ্দেশ্যে বের হয় সাগর মিয়া। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে নরসিংদী শহরে যাওয়ার উদ্দেশ্যে তিনজন যাত্রী তার অটোরিকশায় উঠেন। শহরে যাওয়ার পর তাকে আটকে ওই অটোরিকশাটি ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেওয়া হয়। পরে একটি সিএনজি ভাড়া করে তাকে নিয়ে রাজধানী ঢাকার উত্তরখান থানার মাস্টারবাড়ি এলাকার একটি বাড়িতে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়। এরপর থেকে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। এই ঘটনায় ২৬ জুন রায়পুরা থানায় একটি জিডি করেন নিখোঁজ কিশোরের বাবা।

রায়পুরা থানার পুলিশ জানায়, অপহৃত হওয়ার ২৩ দিন পর অর্থাৎ গত দুই দিন আগে সাগরের বাবার মোবাইল ফোনে একটি কল আসে। ওই সময় তাকে বলা হয়, ৮টি বিকাশ নাম্বারে ২৫ হাজার করে মোট দুই লাখ টাকা পাঠালে সাগরকে জীবিত ফেরত দেওয়া হবে। এর মধ্যে একটি বিকাশ নাম্বারে ১৭ হাজার টাকা পাঠানো হয়। ওই বিকাশ নাম্বারগুলো রায়পুরা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সত্যজিৎ কুমার ঘোষের কাছে দেওয়া হলে তিনি যাচাই করে জানতে পারেন, বিকাশ নাম্বারগুলো উত্তরখান থানার মাস্টারবাড়ি এলাকার। পরে উত্তরখান থানা ও রায়পুরা থানার পুলিশ সেখানকার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে সাগরকে জীবিত উদ্ধার করে। পরে পালিয়ে যাওয়ার সময় অপহরণের সঙ্গে জড়িত ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বিক্রি করে দেওয়া ওই ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাটিও উদ্ধার করেছে পুলিশ।

উদ্ধার হওয়া অটোরিকশাচালক কিশোরের বাবা রবি মিয়া জানান, নিখোঁজের পর থেকে তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেছি। আত্মীয়-স্বজনসহ সম্ভাব্য সব জায়গায় যোগাযোগ করেও তাঁর কোন খোঁজ পাচ্ছিলাম না। আমরা তার আশাই ছেড়ে দিয়েছিলাম। তাকে ফিরে পেয়ে আমাদের ঈদের আনন্দ ফিরে পেয়েছি।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সাহেব আলী পাঠান বলেন, তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় মোঃ সাগর মিয়া নামের ওই কিশোরকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছি আমরা। গত ২৫ দিন ধরে তাকে একটি বাড়িতে তালাবদ্ধ করে রেখেছিল অপহরণকারীরা। সেই সঙ্গে ৬ জন অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে রায়পুরা থানায় মামলা হয়েছে।