রায়পুরায় ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেপ্তার

২০ মে ২০১৯, ০৮:২৪ পিএম | আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০২:২১ এএম


রায়পুরায় ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেপ্তার

রায়পুরা প্রতিনিধি ॥
নরসিংদীর রায়পুরায় পূবেরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত আসামী মুজিবুর রহমান (৫২)কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার (২০ মে) সকালে সিলেট থেকে ফেরার পথে রায়পুরার হাটুভাঙ্গা রেলস্টেশন থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
গত ২৯ এপ্রিল উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের পঞ্চম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের পর থেকে পলাতক ছিল মুজিবর রহমান।

রায়পুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহসিনুল কাদির জানান, ঘটনার পর থেকে আসামী মুজিবুর সিলেট, মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। আজ সকালে সিলেট থেকে ফেরার পথে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হাটুভাঙ্গা রেলস্টেশন থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মুজিবুর রহমান ধর্ষণে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

নির্যাতিতা ছাত্রীর পরিবার ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৯ এপ্রিল পঞ্চম শ্রেণির ওই ছাত্রী বাড়ির পাশে সবজি ক্ষেত্রে করলা তুলতে যায়। এসময় একই গ্রামের সেচপাম্পের মালিক মজিবুর রহমান মজু তাকে কু-প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তার হাতে ও মুখে জোরপূর্বক ঝাপটে ধরে জমির পাশের একটি নির্জন ঝোঁপে নিয়ে ধর্ষণ করে। ওই সময় তার চিৎকার শুনে আশেপাশের কৃষকরা ছুঁটে এলে ঘটনাস্থল থেকে মজিবুর পালিয়ে যায়। ঘটনার পরদিন ৩০ এপ্রিল নরসিংদী সদর হাসপাতালে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়। ওইদিন রাতেই ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে অভিযুক্ত মজিবুরকে আসামী করে রায়পুরা থানায় মামলা দায়ের করেন।
এদিকে এ ঘটনার বিচার দাবীতে উপজেলার নীলকুঠিতে দুটি স্কুলের ডাকা মানববন্ধন বন্ধ করে দেয় প্রভাবশালী এক জনপ্রতিনিধি।
বৃহস্পতিবার (১৬ মে) মাহমুদাবাদ রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতে আগামী এক সাপ্তাহের মধ্যে পুলিশকে আসামী ধরতে সহযোগিতা করা হবে এমন আশ্বাসের ভিত্তিতেই ডাকা মানববন্ধন বন্ধ করা হয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। পরে তাদের আশ্বাসে দুটি বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা বাড়ি ফিরে যেতে বাধ্য হয়েছিল।