এবার মোদীকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর ফোন

২২ আগস্ট ২০১৯, ০৬:০৬ পিএম | আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৭:২০ পিএম


এবার মোদীকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর ফোন

বিদেশ ডেস্ক:

কাশ্মির পরিস্থিতি নিয়ে দু’দিন আগেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) একই ইস্যু নিয়ে মোদীর সঙ্গে কথা হয়েছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনেরও।

কাশ্মির ইস্যুতে পাকিস্তানের সঙ্গে চলমান দ্বন্দ্ব নিরসনে ট্রাম্প মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দিলেও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী সেদিকে ইঙ্গিত করেননি। দুই পক্ষের আলোচনার মাধ্যমে এ সঙ্কট সমাধানে গুরুত্ব দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

গতকাল বুধবার (২১ আগস্ট) বার্তা সংস্থা পিটিআই’র বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, গত মাসে ক্ষমতা গ্রহণের পর বিশ্বনেতাদের কাছে ধারাবাহিক ফোনকলের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) মোদীর সঙ্গে কথা বলেন বরিস জনসন।

ডাউনিং স্ট্রিটের এক মুখপাত্র জানান, দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী ভারতশাসিত কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন স্পষ্ট জানিয়েছেন, ইস্যুটিকে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সমস্যা বলে মনে করে যুক্তরাজ্য। পাশাপাশি, এ সমস্যা সমাধানে আলোচনার ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন তিনি।

ব্রিটিশ মুখপাত্র জানান, ভারত-যুক্তরাজ্যের মধ্যে বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে, যা দুই দেশের উন্নয়ন ঘটাবে বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

মোদী-জনসন ফোনালাপ প্রসঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, নরেন্দ্র মোদী ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে বলেছেন, সন্ত্রাস গোটা বিশ্বেই ছড়িয়ে পড়েছে। এ হুমকি মোকাবিলায় দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে।

এসময়, গত ১৫ আগস্ট ভারতের ৭৩তম স্বাধীনতা দিবসে লন্ডনে ভারতীয় হাইকমিশনের সামনে কাশ্মিরিদের প্রতি সংহতি জানিয়ে বিপুল সংখ্যক মানুষের বিক্ষোভের বিষয়েও জনসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন নরেন্দ্র মোদী। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে তাকে আশ্বস্ত করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

আগামী সপ্তাহেই ফ্রান্সে অনুষ্ঠিতব্য জি-সেভেন সম্মেলনে যোগ দেবেন মোদী ও জনসন। সেখানে তাদের প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিক বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।


বিভাগ : বিশ্ব