আর একটি স্প্যান বসলেই দৃশ্যমান হবে পুরো পদ্মা সেতু

০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:২৭ পিএম | আপডেট: ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০২:৫৯ এএম


আর একটি স্প্যান বসলেই দৃশ্যমান হবে পুরো পদ্মা সেতু

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সফলভাবে বসানো হলো স্বপ্নের পদ্মা সেতুর ৪০তম স্প্যান (২-ই)। শুক্রবার (০৪ ডিসেম্বর) সকাল ১১টা পাঁচ  মিনিটের দিকে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের সেতুর ১১ ও ১২ নম্বর পিলারের ওপর এ স্প্যানটি বসানো হয়। এর আগে ২৭ নভেম্বর বসানো হয় সেতুর ৩৯তম স্প্যান। মাত্র সাত দিনের মাথায় বসানো হলো এ স্প্যান।

এ স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হলো সেতুটির ৬, ০০০ মিটার অর্থাৎ ছয় কিলোমিটার। বাকি রয়েছে আর মাত্র একটি স্প্যান বসানো। বিজয় দিবসের আগেই সেতুর শেষ ৪১ তম স্প্যানটি বসবে। আর এ ৪১তম  স্প্যান বসবে সেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ওপর। দৃশ্যমান হবে পুরো সেতুর ৬,১৫০ মিটার। একদিকে যেমন সেতুর স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হচ্ছে। অপরদিকে বসানো স্প্যানগুলির ওপর রোডওয়ে ও এগিয়ে চলেছে রেলওয়ে স্লাবের কাজও।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান আব্দুল কাদের জানান, বৃহস্পতিবার সকালে মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে তিন হাজার ছয়শ’ টন ওজন ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই এর মাধ্যমে তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের ধূসর রঙ এর ১৫০ মিটার দৈর্ঘের ৪০ তম স্প্যানটিকে নিয়ে নির্ধারিত ১১ ও ১২ নম্বর পিলারের কাছে নিয়ে রাখা হয়। ক্রেনটি নির্ধারিত পিলারের সামনে পৌঁছানোর পরই নোঙরের কাজ করা হয়।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার সকাল থেকে স্প্যান বসানোর সকল কাজ শুরু করা হয়। সবকিছু ঠিকঠাক থাকায় সফলভাবেই বসানো হয় সেতুর ৪০তম স্প্যান।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘে্যর দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্ট্রিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড (এমবিইসি) মূল সেতুর কাজ ও নদী শাসনের কাজ করছে চীনের আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।


বিভাগ : বাংলাদেশ


এই বিভাগের আরও