চীনে ওমিক্রন শনাক্ত: লকডাউনের আওতায় ৫০ লাখ মানুষ

১১ জানুয়ারি ২০২২, ০৫:৫৫ পিএম | আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:২৫ এএম


চীনে ওমিক্রন শনাক্ত: লকডাউনের আওতায় ৫০ লাখ মানুষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) উচ্চ সংক্রমণশীল ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্তের পর চীনের মধ্যাঞ্চলীয় একটি শহরে ৫০ লাখ মানুষকে লকডাউনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুসারে, হেনান প্রদেশের আনিয়াং শহরে দুজনের নমুনায় ওমিক্রন শনাক্তের পর এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি এ খবর জানিয়েছে।

আগামী মাসে অনুষ্ঠিতব্য শীতকালীন অলিম্পিক আয়োজিত হবে চীনে। এর ফলে সংক্রমণ ঠেকাতে চরম সতর্ক বেইজিং। কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে ‘জিরো-কোভিড’ নীতি। এর আওতায় লকডাউন, বৃহত্তর বিধিনিষেধ ও কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে।
এমন কঠোর পদক্ষেপের ফলে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের হটস্পটগুলোর তুলনায় চীনে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা অনেক কম ছিল। কিন্তু লকডাউনে মানুষ দুর্ভোগে পড়ছেন।

সোমবার শেষ রাতের দিকে আনিয়াং কর্তৃপক্ষ লকডাউনের ঘোষণা দেয়। ঘোষণায় স্থানীয় বাসিন্দাদের ঘর ত্যাগ না করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে রাস্তায় গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। অত্যাবশ্যক বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ছাড়া সবধরনের দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া গণপরীক্ষা শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার আনিয়াং শহরে ৫৮ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। শনিবার থেকে এখন পর্যন্ত শহরটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৪ জনে। নতুন শনাক্তে ওমিক্রন আক্রান্ত কেউ রয়েছে কিনা তা জানা যায়নি।

হেনান প্রদেশের অন্তত তিনটি শহরে সংক্রমণ বাড়ছে। প্রাদেশিক রাজধানী ঝেংঝুতে স্কুল এবং রেস্তোরাঁয় বসে খাবার খাওয়া বন্ধ করা হয়েছে। গত সপ্তাহে ইউঝু শহরে ১০ লাখ মানুষকে ঘরে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। এর আগে তিয়ানজিন শহরে লকডাউন জারি করা হয়।


বিভাগ : বিশ্ব