আইনজীবী স্ত্রীর মামলায় পুলিশ স্বামী কারাগারে

০৩ জুলাই ২০১৯, ০৭:১১ পিএম | আপডেট: ২২ আগস্ট ২০১৯, ০৯:৩৪ পিএম


আইনজীবী স্ত্রীর মামলায় পুলিশ স্বামী কারাগারে

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :

নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট জাসমীন আহমেদের দায়েরকৃত নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় তার স্বামী পুলিশ পরিদর্শক আবু নকীবকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

আবু নকীব ঢাকা মহানগর ট্রাফিক ইন্সপেক্টর হিসেবে কর্মরত।

বুধবার (৩ জুলাই) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ শাহীন খন্দকার শুনানি শেষে আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, এর আগে এই মামলায় ৬ সপ্তাহ আগাম জামিনে ছিলেন আবু নকীব। বুধবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনালে আবু নকীব আত্মসমর্পণ করে জামিনের জন্য আবেদন করলে আদালত তা নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

আদালতের স্পেশাল পিপি রকিব আহমেদ বলেন, নারায়ণগঞ্জ জজ কোর্টের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর জাসমিন আহমেদকে ২০০৭ সালের ১৪ মে পুলিশ পরিদর্শক আবু নকিব ১০ লাখ এক হাজার টাকা দেনমোহরে বিয়ে করেন।

বিয়ের পর থেকেই ৫০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে দুই দফায় মারধর করে গুরুতর আহত করে স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এ ঘটনায় আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

জাসমীন আহমেদ জানান, যৌতুক না পেয়ে প্রায় সময় আবু নকীব ঘুমের মধ্যে আমার গলা টিপে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা করতেন। এসব বিষয়ে প্রতিবাদ করলে কোমরের বেল্ট ও পায়ের বুট জুতা দিয়ে আমাকে মারধর করতো। এ ছাড়াও আবু নকিব গোপনে আরও দুটি বিয়ে করেছে। সম্প্রতি আমাকে মারধর করে আবু নকিব পাঁচ লাখ টাকা ও ১০ ভরি স্বর্ণালংকার লুটে নিয়েছে।

আদালতে আইনজীবী জাসমীন আহমেদের পক্ষে জামিন শুনানিতে অংশগ্রহণ করে জামিনের বিরোধীতা করেন- বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী সিদ্দিকুর রহমান, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি আব্দুর রশিদ ভূঁইয়া, সাবেক সভাপতি আব্দুল বারী ভূঁইয়া, সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি মাসুদুর রউফ, বর্তমান সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সিনিয়র সহ-সভাপতি আলী আহম্মদ ভূঁইয়া, সহ সভাপতি বিদ্যুৎ কুমার সাহা, সাধারণ সম্পাদক মোহসীন মিয়া, কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রউফ মোল্লা, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, সিনিয়র আইনজীবী সেলিম ইয়াসমিন, অতিরিক্ত পিপি মাকসুদা হাবিব, এপিপি সুইটি ইয়াসমিন, এপিপি কামরুল নাহার ময়না, এপিপি শাহনাজ শম্পা, মোনতাছির বাঁধন, মোহসীনা মুনাসহ শতাধিক আইনজীবী।


বিভাগ : বাংলাদেশ