মাধবদীতে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে সম্ভ্রম রক্ষা করলো ছাত্রী

১৫ আগস্ট ২০১৯, ০৭:৪৯ পিএম | আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:৫৩ পিএম


মাধবদীতে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে সম্ভ্রম রক্ষা করলো ছাত্রী
পুরনো ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
নরসিংদীর মাধবদীতে নৌকা থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে বখাটেদের হাত থেকে সম্ভ্রম রক্ষা করলো দশম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রী। এ ঘটনায় বুধবার (১৪ আগস্ট) মাধবদী থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই ছাত্রীর মা। অভিযোগ দেয়ার পর অভিযুক্ত বখাটেদের হুমকির মুখে বাড়ি ছাড়া ভুক্তভোগী ওই পরিবার।


এর আগে গত মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) বিকেলে নরসিংদী সদর উপজেলার মাধবদী থানার দণি চরভাসানিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু তাহের দেওয়ান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর পরিবার জানায়, কয়েক মাস ধরে চরভাসানিয়া এলাকার জালাল মিয়ার বখাটে ছেলে মোক্তার ও তার সহযোগীরা একই এলাকার ওই মাদ্রাসা ছাত্রীকে উত্যক্ত করে আসছিলো। বিভিন্ন সময় তারা ওই ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেয়া সহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসলেও পরিবারটি ভয়ে এ ঘটনা কাউকে জানাতে পারেনি। মঙ্গলবার বিকালে ওই ছাত্রী নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার থানার গোপালদী থেকে প্রাইভেট পড়া শেষে নৌকাযোগে চরভাসানিয়া ঘাটে এসে নামে।
এসময় বখাটে মোক্তারের নেতৃত্বে একই এলাকার জমির আলীর বখাটে ছেলে সিফাত (২৬) ও বেতের আলীর ছেলে ইব্রাহীম (২৮) তার পথরোধ করে দাঁড়ায়। এক পর্যায়ে বখাটেরা ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক নৌকায় উঠিয়ে নেয়। এসময় বখাটেদের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করতে মেঘনার শাখা নদীতে ঝাঁপ দিলে বখাটেরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে নদী থেকে স্থানীয়রা ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মাধবদী থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। অভিযোগ দেয়ার পর অভিযুক্ত বখাটে মোক্তার ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী ভুক্তভোগী মেয়ের পরিবারটিকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। এতে ওই পরিবারটি নিরাপত্তাহীনতার আশংকায় নিজ বাড়ি ফিরতে পারছে না।


এদিকে অভিযোগ পেয়ে সঙ্গীয় ফোর্সসহ বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) বিকালে দণি চরভাসানিয়ার ঘটনাস্থল গিয়ে পরিদর্শন করেন থানার উপ-পরিদর্শক মো: মনির হোসেন।
অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে উপ-পরিদর্শক মনির হোসেন জানান, অভিযোগটির তদন্তের সময় অভিযুক্ত বখাটে মোক্তার তার সহযোগীরা ওই মেয়ের পরিবারের লোকজনকে জিম্মি করে রাখে বলে খবর পেয়েছি। ভুক্তভোগী পরিবারটি প্রাণভয়ে স্থানীয় এক ইউপি সদস্যের আশ্রয়ে রয়েছেন।


মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু তাহের দেওয়ান জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও তদন্ত করেছে। তদন্ত অনুযায়ী প্রয়োজনীয় আইনী পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।