নরসিংদী মুক্ত দিবস পালন 

১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:১০ পিএম | আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ০৪:০৪ এএম


নরসিংদী মুক্ত দিবস পালন 

নিজস্ব প্রতিবেদক:
আজ ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার নরসিংদী হানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষে নরসিংদী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকালে জেলা প্রশাসন সার্কিট হাউজ প্রাঙ্গনে নির্মিত “যূথবদ্ধ: সংগ্রামে-শান্তিতে-সৃস্টিতে” নামের ভাস্কর্যের সামনে বেলুন উড়িয়ে দিবসের সূচনা করেন। পরে জেলা সার্কিট হাউজ থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গনে গিয়ে শেষ হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন। স্থানীয় সরকার শাখার উপপরিচালক ড. এটিএম মাহবুব-উল করীম’র সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে ছিলেন, নরসিংদী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন ভূইয়া।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হাসান, সিভিল সার্জন ডা: মো: হেলাল উদ্দিন, নরসিংদী সরকারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর গোলাম মোস্তাফা মিয়া ও সেক্টর কমান্ডার ফোরাম ৭১’র জেলা সভাপতি আব্দুল মোতালিব পাঠান ও নরসিংদী প্রেসক্লাবের সভাপতি মাখন দাস প্রমুখ।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট চৌধুরী আশরাফুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমরুল কায়েস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাস (রাজস্ব) কমল কুমার ঘোষ, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি প্রফেসর সূর্য্যকান্ত দাস, নরসিংদী সরকারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ আলী, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম জামেরী হাসান, সিনিয়র সহকারী কমিশনার আসসাদিকউজ্জামান, সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. শাহ আলম মিয়া, সহকারী কমিশনার শাহরুখ খান, তাহমিনা বেগম, সিলভিয়া সুলতানাসহ সরকারী বেসরকারী বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থী।

সভায় বক্তারা বলেন, সারা বাংলাদেশ স্বাধীন হয় ১৬ ডিসেম্বর। কিন্তু এর আগেই ১০ ডিসেম্বর রায়পুরা এবং ১২ ডিসেম্বর সমস্ত নরসিংদী হানাদার মুক্ত হয়। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে নরসিংদীর বীর সন্তানদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। এই যুদ্ধে নরসিংদীতে বীরশ্রেষ্ঠ, বীর প্রতিক, বীর বিক্রম, বীর উত্তম সহ সকল সূর্য্য সন্তানই রয়েছেন। তাই এক কথায় বলা চলে মহান মুক্তিযুদ্ধে নরসিংদীবাসীর ভূমিকা অপরিসীম।