মরজালে যাত্রীবাহীবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে চার গাড়িতে ধাক্কায় আহত ১৫

১৬ মে ২০২২, ০৬:৪৬ পিএম | আপডেট: ২৯ জুন ২০২২, ০৯:৪১ পিএম


মরজালে যাত্রীবাহীবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে চার গাড়িতে ধাক্কায় আহত ১৫

রায়পুরা প্রতিনিধি:

নরসিংদীর রায়পুরায় ঢাকা সিলেট মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে থেমে থাকা একটি ব্যক্তিগত প্রাইভেটকার ও দুইটি যাত্রীবাহী বাসকে ধাক্কা দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে উপজেলার মরজাল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনাকবলিত তিন বাস ও এক প্রাইভেটকার যাত্রী ও স্থানীয় কয়েকজন ফল ব্যবসায়ীসহ অন্তত ১৫ জন আহত হলেও তাদের মধ্যে গুরুতর আহত হয়েছেন ৫ জন। এতে চারটি গাড়ী ক্ষতি গ্রস্ত হয়।

খবর পেয়ে ভৈরব হাইওয়ে থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। দুর্ঘটনাকবলিত গাড়িগুলো জব্দ করে ভৈরব হাইওয়ে থানায় নেওয়ার হয়। গুরুতর আহতরা হলেন উত্তরা পরিবহনের চালক। যার নাম পরিচয় এখনো জানা যায়নি। ফল ব্যবসায়ী শাকিব খান (২২) ও জসিম উদ্দিন (৩০)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকালে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ব্রাহ্মণবাড়ীয়ামুখী উত্তরা পরিবহনের একটি বাস মরজাল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় যাত্রী উঠানো নামানোর চেষ্টা করে। এসময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রথমে স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা প্রাইভেটকারকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে প্রাইভেটকারটির পিছনের ডান পাশের অংশ দুমড়ে মুচড়ে ঘুরে যায়। পরে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীবাহী বাসকে ধাক্কা দেয়। আরও একটুও সামনে দাঁড়িয়ে থাকা অপর আরও একটি বাসকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে চারটি গাড়ী ও গাড়ীতে থাকা যাত্রী দূর্ঘটনা কবলিত হয়।

সড়কের পাশে মৌসুমি ফলের বাজার থাকায় কয়েকজন ফল ব্যবসায়ী গুরুতর আহত হন। ঘটনার পর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ভৈরব হাইওয়ে থানার পুলিশ ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নরসিংদী হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ফল ব্যবসায়ী জানান, মরজাল বাস্ট্যান্ডে সারা বছর মৌসুমি ফলের হাট বসে। এতে লোক সমাগম থাকে প্রচুর হঠাৎ একটি গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা প্রাইভেটকারসহ দুইটি বাসকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়রা ৮ থেকে ১০ জন গুরুতর আহতকে উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠায়। বাস চালক ও দুই ব্যবসায়ী গুরুতর আহত।

ব্যক্তিগত প্রাইভেটকারটির চালক ও মালিক শহিদুল ইসলাম জানান, আমি সহ আরও কয়েকজন ছিলো সড়কের পাশে গাড়িটি রাখা মাত্রই পিছন থেকে একটি বাস ধাক্কা দেয়। এতে পিছনের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। কোন রকমে প্রাণে রক্ষা পাই। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত একজন নরসিংদী জেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। অপর উত্তরা পরিবহনের চালক ও স্থানীয় কয়েকজন ফল ব্যবসায়ীসহ গুরুতর আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া হচ্ছে।

ভৈরব হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক নূর মিয়া জানান, মরজাল বাস্ট্যান্ড এলাকায় দুপুরে উত্তরা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রথমে দাঁড়িয়ে থাকা প্রাইভেটকার পরে আরও দু'টি যাত্রীবাহি বাসকে ধাক্কা দেয়। এতে চারটি গাড়ী ক্ষতিগ্রস্ত হয়। চারটি গাড়ী দূর্ঘটনার কবলিত স্থান থেকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। জানতে পারি এ ঘটনায় ৭জন গুরুতর আহত হন। এ ঘটনায় আইনগত কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।



এই বিভাগের আরও