রাম্বুটান ও কাজুবাদাম চাষে ঋণ প্রদানের উদ্যোগ

১৮ আগস্ট ২০১৯, ০১:০২ পিএম | আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:৫২ এএম


রাম্বুটান ও কাজুবাদাম চাষে ঋণ প্রদানের উদ্যোগ

টাইমস ডেস্ক:

দেশে লাভজনক হিসেবে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে বিদেশি ফল রাম্বুটান চাষ। এছাড়া কাজুবাদামও একটি উচ্চ মূল্যের ফল। দেশে আমদানী নির্ভরতা কমাতে এই দুই ফসল চাষে কৃষকদের ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। নতুন কৃষিনীতিতে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

কেন্দ্রিয় ব্যাংকের তথ্যমতে, চলতি অর্থবছরে (২০১৯-২০) ২৪ হাজার ১২৪ কোটি টাকা কৃষি ঋণ বিতরণের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে শস্য খাতে মোট লক্ষ্যমাত্রার ৬০ শতাংশ, মৎস খাতে ১০ শতাংশ ও প্রাণিসম্পদ খাতে ১০ শতাংশ বিতরণ করতে হবে। বিদেশী শস্য কাজুবাদাম ও রাম্বুটান চাষের ঋণ শস্য খাতের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

আমাদের দেশে কাজু বাদামের চাহিদা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রধানত আমদানির মাধ্যমে পূরণ করা হয়ে থাকে কাজুবাদামের চাহিদা। তবে দেশেও এটা চাষ করার সুযোগ ও সম্ভাবনা রয়েছে। এর মাধ্যমে দেশের চাহিদা পূরণ করা হলে বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করা সম্ভব।

ইনসিটো পদ্ধতিতে কাজু বাদাম চাষ খুবই সময়োপযোগী একটি প্রযুক্তি। এটি পাহাড়ি এলাকায় ঢালু ও টিলা যুক্ত পতিত অনুর্বর জমির বাণিজ্যিক ফসল। পুষ্টি গুনাগুনের বিবেচনায় এ বাদামকে সুপারফুড বলা হয়। ইনসিটো পদ্ধতিতে কাজু বাদামের চাষাবাদ পাহাড়ের মাটি ক্ষয় রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এ কারণে পাহাড়ি টিলা যুক্ত অনুর্বর পতিত জমিতে এর চারা রোপণ করা যেতে পারে। এ পদ্ধতিতে কাজু বাদামের চারা অতি দ্রুত বর্ধনশীল এবং বীজ বপনের দুই বছর থেকেই কাজু বাদাম পাওয়া সম্ভব। এছাড়া এটা থেকে তেলও উৎপাদন করা যায়। উপযুক্ত অঞ্চলে কাজু বাদাম চাষাবাদের উদ্দেশ্যে ব্যাংকগুলোকে কৃষি ঋণ বিতরণের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

রাম্বুটান অনেকটা লিচুর মতো তবে আকারে লিচুর চেয়ে বড়, ডিম্বাকৃতির ও কিছুটা চ্যাপ্টা। পাকা ফল উজ্জ্বল লাল, কমলা ও হলুদ রঙের হয়ে থাকে। বর্ষাকালে জুলাই থেকে আগস্ট মাসে এ ফল পাকে। পরিণত হওয়ার ২-৩ সপ্তাহের মধ্যে পাকা ফল সংগ্রহ করার উপযোগী হয়। বাংলাদেশের আবহাওয়া রাম্বুটান চাষের জন্য উপযোগী। দক্ষিণ ও পার্বত্য জেলাসহ ঢাকা, খুলনা, যশোর, নরসিংদী জেলায় এ ফলের চাষাবাদের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রায় সব ধরনের মাটিতেই এই ফল চাষ করা যায়। রাম্বুটান চাষেও নির্ধারিত নিয়ম অনুযায়ী ঋণ বিতরণ করতে পারবে ব্যাংকগুলো।


বিভাগ : অর্থনীতি