এশিয়ায় সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি হবে বাংলাদেশে: এডিবি

০৩ এপ্রিল ২০২০, ০৭:৫২ পিএম | আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০২০, ১১:০৫ পিএম


এশিয়ায় সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি হবে বাংলাদেশে: এডিবি
ফাইল ছবি

অর্থনীতি ডেস্ক:

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) চ্যালেঞ্জ যথাযথভাবে মোকাবেলা করতে পারলে চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশের অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি জোরালোই থাকবে বলে মনে করছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)।

২০১৯-২০ অর্থবছরে বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি আগের বছরের চেয়ে কিছুটা কমে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে সংস্থাটি। যা করোনার পরিস্থিতির মধ্যে সুখবর আভাস। শুক্রবার (৩ মার্চ) প্রকাশিত এডিবির এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুক ২০২০ এর পূর্বাভাসে এ তথ্য দেয়া হয়েছে।

এডিবির মতে, করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি হয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে বিশ্ব অর্থনীতিতে।

এডিবির তথ্যমতে, এশিয়ার গড় প্রবৃদ্ধি ব্যাপকভাবে কমে যেতে পারে। ২০২০ সালে এশিয়ার গড় প্রবৃদ্ধি ২ দশমিক ২ শতাংশ হবে বলে মনে করছে সংস্থাটি। গতবছর গড়ে ৫ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছিল এশিয়ায়।

এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে চীন ২ দশমিক ৩ শতাংশ, ভারতে ৪ শতাংশ, ভিয়েতনামে ৪ দশমিক ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে এডিবি। পূর্ব এশিয়ার দেশগুলো বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছে এডিবি।

করোনাভাইরাসের আগে চলতি অর্থবছরের প্রথম ৮ মাসে বাংলাদেশের অর্থনীতি ভালো করেছে জানিয়ে এডিবি বলেছে- রেমিট্যান্সের কারণে অভ্যন্তরীণ চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছিল। সরকারের ব্যয় বৃদ্ধি, তরলীকৃত গ্যাস, তেল ও কন্সট্রাকশন পণ্যের আমদানি বৃদ্ধি, অধিক বিদ্যুৎ উৎপাদন ও রফতানিতে সরকারের প্রণোদনার জন্য অভ্যন্তরীণ চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছিল। তবে করোনা মহামারির কারণে রফতানি চাহিদা, অভ্যন্তরীণ ভোগ ও রেমিট্যান্স কমবে বলে জানিয়েছে এডিবি।

চলতি অর্থবছরে ৮ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে সরকার। আর গত অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি হয়েছিল ৮ দশমিক ১৩ শতাংশ।


বিভাগ : অর্থনীতি