শীতের আগমন: জানুন ঠাণ্ডা, সর্দি-কাশি দূর করার উপায়

২৬ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৪৪ পিএম | আপডেট: ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:৪৪ এএম


শীতের আগমন: জানুন ঠাণ্ডা, সর্দি-কাশি দূর করার উপায়

টাইমস জীবনযাপন ডেস্ক:

শীত একেবারে দোরগোড়ায় এসে পৌঁছেছে আর আবহাওয়ার পরিবর্তনের সাথে সাথে শরীর স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পড়ছে অনেকেরেই। তাই তো গলা খুশখুশ সর্দি ভাব, ঠাণ্ডা, কাশি এসব চলতেই থাকে। জেনে নিন এমন সমস্যা থেকে মুক্তির কিছু উপায়-

মধু : ত্বকের পাশাপাশি শরীরের জন্যও মধু বেশ উপকারী। গলার খুসখুসে ভাব কমিয়ে দ্রুত আরাম দেয়। মধু গরম বলে ঠাণ্ডা প্রতিরোধ করে। হালকা গরম পানির সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেতে পারেন। এ ছাড়া আঙ্গুরের রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে এমন কি চা-এ চিনির পরিবর্তে মধু দিয়ে খেতে পারেন। বয়স্করা মধুর সঙ্গে এক চামচ দারুচিনি গুঁড়া মিশিয়ে খেলেও বেশ উপকার পাবেন।

লেবু : লেবুতে রয়েছে সাইট্রিক এসিড যা ঠাণ্ডার ভালো ওষুধ। লেবু চা খেতে পারেন। কুসুম গরম পানিতে মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে খেয়েই দেখুন ভালো ফিল করবেন। গলাব্যথা বা গলা বসে গেলে গরম পানিতে লেবুর রস ও সামান্য লবণ দিয়ে গড়গড়া করুন। এভাবে দিনে বেশ কয়েকবার করুন।

আদা : প্রাচীনকাল থেকেই ঠাণ্ডা, জ্বর, কাশি ও মাথাব্যথার জন্য আদার ব্যবহার হয়ে আসছে। আদা চা গলার কফ পরিষ্কার করে ও খুসখুসে ভাব কমায়। এ ছাড়াও আদা রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে কুসুম গরম করে দিনে তিনবার খান। দ্রুত কাশি নিরাময় হবে।

রসুন : রসুনে রয়েছে আলিসিন ও অন্যান্য অর্গানোসালফার উপাদান যা সংক্রমণকারী ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়ার বিনাশ করে। গলা বসে গেলে রসুন থেঁতো করে তাতে গরম পানি দিয়ে শরবত করে নিন। পাঁচ মিনিট পর মিশ্রণটি পান করুন, অতি দ্রুত ভালো ফিল করবেন।

গোলমরিচ : গরম পানিতে এক চা চামচ গোলমরিচ গুঁড়ার সঙ্গে দুই চা চামচ মধু মিশিয়ে ১৫ মিনিট রেখে দিন। গোলমরিচের দানা নিচে জমা হলে ধীরে ধীরে পান করুন। অতি দ্রুত ঠাণ্ডা থেকে মুক্তি পাবেন।

লবঙ্গ : কয়েক টুকরা লবঙ্গ সেদ্ধ পানিতে সামান্য লবণ মিশিয়ে কুসুম গরম থাকতে খেয়ে নিন। এটি ভীষণ উপকারী। এ ছাড়াও লবঙ্গ ও আদা পানিতে ১৫ মিনিট সেদ্ধ করে সেই পানি দিয়ে গড়গড়া করলেও উপকার পাবেন।

হলুদ মিশ্রিত দুধ : হলুদে রয়েছে অ্যান্টিসেপটিক উপাদান যা বিভিন্ন ভাইরাসজনিত ইনফেকশন সারাতে কার্যকর। গরম দুধের সঙ্গে খানিকটা হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে রাতে ঘুমানোর আগে পান করলে সর্দি ও গলা ব্যথা থেকে অতি দ্রুত মুক্তি পাবেন।

পিয়াজের রস : পিয়াজের রস কাশি নিরাময় করে, এটি অনেকেরই অজানা। পিয়াজ রস করে তাতে মধু দিয়ে খেতে পারেন। এ ছাড়াও খাবারের সঙ্গে খেতে পারেন কাঁচা পিয়াজ।

টমেটো সুপ তৈরি: তিনটি টমেটো সেদ্ধ করে ভালো করে পেস্ট করে নিন তারপর কড়াইতে অল্প মাখন কিংবা সাদা তেল দিয়ে দিন। সেটি গরম হয়ে গেলে টমেটোর পেস্ট ঢেলে দিয়ে কিছুক্ষণ সিদ্ধ করুন তার পর পানি নুন গোলমরিচের গুঁড়ো দিয়ে আবার কিছুক্ষণ সিদ্ধ করুন। এর পর পেঁয়াজ ও রসুনের গুঁড়ো দিয়ে কর্নস্টার্চ ঠান্ডা পানি গুলে সেটি মিশিয়ে দিন তার পর ছোট ছোট মাখনের টুকরো ওপরে ছড়িয়ে দিয়ে সেটি নামিয়ে নিন এবং উষ্ণ অবস্থাতেই সেটি গ্রহণ করুন।


বিভাগ : জীবনযাপন