শিবপুরে ক্ষুদ্র দোকানে হলো প্রতিবন্ধী ব্যক্তির কর্মসংস্থান

০৬ জুলাই ২০২০, ০৮:০২ পিএম | আপডেট: ০৮ আগস্ট ২০২০, ১০:৪৬ পিএম


শিবপুরে ক্ষুদ্র দোকানে হলো প্রতিবন্ধী ব্যক্তির কর্মসংস্থান

শেখ মানিক:

নরসিংদীর শিবপুরে দোকানের মালামাল কিনে দিয়ে আবদুর রহিম নামে এক শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তির কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. হুমায়ূন কবীর। সোমবার (৬ জুলাই) বিকালে ব্যক্তিগত অর্থায়নে ১৫ হাজার টাকার মালামাল কিনে ওই দোকানটি সাজিয়ে দেয়া হয়।

এর আগে উপজেলার শিমুলতলা বাজারে এই দোকান ঘরটি নির্মাণ করে দেন পলাশ উপজেলাস্থ দেশবন্ধু সুগার মিলের কর্মকর্তা ও শ্রমিকরা। প্রতিবন্ধী আবদুর রহিম শিবপুর উপজেলার দুলালপুর ইউনিয়নের দুলালপুর গ্রামের মৃত জমসের আলীর ছেলে। রহিম ৬ বছরের শারীরিক প্রতিবন্ধী এক ছেলে সন্তানের জনক।

রহিম জানান, কাজ না থাকায় তিনি দীর্ঘদিন যাবত জেলার বিভিন্ন হাটবাজারে ঘুরে মসজিদের এবং এতিমখানার কমিটির অনুমোদনক্রমে চাঁদার টাকা তুলতেন। শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী হওয়ায় খুব বেশি এলাকা হাটতে পারেন না রহিম। অল্প পরিমানে আদায়কৃত চাঁদার টাকা থেকে প্রাপ্ত কমিশনে তার সংসার চালাতে কষ্ট হতো। কিছুদিন পূর্বে পলাশ উপজেলার দেশবন্ধু সুগার মিল মসজিদে ক্লান্ত শরীর নিয়ে মসজিদের ভিতরে বসেছিলেন রহিম। এসময় ওই মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জিন তার ব্যক্তিগত বিষয়ে জানতে চান।

এসময় মসজিদ এবং এতিমখানার টাকা তুলে প্রাপ্ত কমিশনে অতিকষ্টে সংসার চালানোর কথা তাদের জানানো হলে তারা ওই মসজিদে নামাজ শেষে রহিমকে অপেক্ষা করতে বলেন। নামাজ শেষে দেশবন্ধু সুগার মিলের কর্মকর্তা ও শ্রমিকদের নিকট আর্থিক সাহায্যের আবেদন জানানো হয়। পরে তারা সবাই অর্থ সহায়তা দিয়ে রহিমকে কর্মসংস্থানের জন্য একটি দোকান ঘর নির্মাণ করে দেন।

পরে শিবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. হুমায়ূন কবীর এর অফিসে গিয়ে তার দোকান ঘরের মালামালের জন্য আবেদন জানালে ইউএনও তার নিজস্ব অর্থায়নে শারীরিক প্রতিবন্ধী আবদুর রহিমকে ১৫ হাজার টাকার মালামাল কিনে দোকানটি সাজিয়ে দেন। প্রতিবন্ধী ব্যক্তি হিসেবে রহিমের কর্মসংস্থানের জন্য এ উদ্যোগকে প্রশংসনীয় বলে জানান স্থানীয়রা।



এই বিভাগের আরও