ওটিস গিবসন কী বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ?

০৬ জানুয়ারি ২০২০, ০৫:৫৪ পিএম | আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৩:৫৬ পিএম


ওটিস গিবসন কী বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ?
ফাইল ছবি

টাইমস স্পোর্টস ডেস্ক:

নিজ দেশের বোলিং কোচ হতে আগ্রহী হওয়াতে বাংলাদেশের বোলিং কোচ শার্ল ল্যাঙ্গেভেল্টেকে ছেড়ে দেয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তাকে অব্যাহতি দেওয়ার পর থেকেই নতুন পেস বোলিং কোচের খোঁজে নামে বিসিবি। এই আলোচনায় প্রথম নাম আসে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান কোচ ওটিস গিবসনের। এ মুহূর্তে কোনো দেশের দায়িত্বে নেই তিনি। সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকার এই কোচও বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদমাধ্যমকে নিজের আগ্রহের কথা জানিয়েও দিয়েছেন অভিজ্ঞ এই কোচ, ‘আমি জানতাম, প্রশ্নটি আসবে। আলোচনা চলছে, অবশ্যই ইতিবাচক আলোচনা হচ্ছে। এটা আমি অস্বীকার করব না। তবে চূড়ান্ত কিছু হওয়া এখনও অনেক অনেক দূর।’

সবকিছু ইতিবাচক হলে দায়িত্ব নেবেন কি না এমন প্রশ্নে ওটিস গিবসন বলেছেন, ‘অবশ্যই। আমি ক্রিকেট ভালোবাসি ও বোলারদের কোচিং করাতে পছন্দ করি। যদি এখানে এসে কাজ করা ও তরুণ ফাস্ট বোলারদের শেখানোর সুযোগ হয়, আমি অবশ্যই সুযোগটি নিতে চাইবো।’

চলতি বিপিএলে কুমিল্লা ওয়ারিয়ার্সের প্রধান কোচ হিসেবে কাজ করছেন গিবসন। কোচ হিসেবে কেবল কুমিল্লার পেসারদেরই দেখছেন তা নয়, অন্য দলের তরুণ অনেক পেসারই নজরে পড়েছে তার। গিবসন বলেছেন, ‘কিছু ক্রিকেটারকে আমি এর মধ্যেই চিনতে পেরেছি। আল আমিন আছে আমাদের দলে, সে জাতীয় দলের পেসার। একটা সম্পর্ক তাই গড়ে উঠেছে। আমি নিজেও ক্রিকেটার ছিলাম, ক্রিকেটারদের সঙ্গে সম্পর্ক কিভাবে গড়ে তুলতে হয়, জানা আছে আমার । এখানে এসে তাই তরুণ পেসারদের, এমনকি অভিজ্ঞদেরও কিছু শেখাতে আমার সমস্যা নেই।’

বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, জাতীয় দলের পেস বোলিং কোচ হিসেবে এখন পর্যন্ত গিবসনই একমাত্র প্রার্থী। সেক্ষেত্রে বলাই যায়, জাতীয় দলের পেস বোলিং কোচ হওয়ার দৌড়ে অনেকখানিই তিনি।

সাবেক এই ক্যারিবিয়ান পেসারের কোচিং ক্যারিয়ার বেশ সমৃদ্ধ। ২টি টেস্ট ও ১৫ টি ওয়ানডে খেলা গিবসন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান কোচ হিসেবে কাজ করেছেন । তার অধীনেই ২০১২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এর আগে ইংল্যান্ডের পেস বোলিং কোচ ছিলেন ২০০৭ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত। দ্বিতীয় দফায় আবারো ইংল্যান্ডের বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করেন ২০১৫ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান কোচের দায়িত্ব নেন । ওখানে ২০১৭ থেকে ছিলেন ২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত ।


বিভাগ : খেলা


এই বিভাগের আরও