বঙ্গবন্ধু ঢাকা ম্যারাথনে সেরা হিসাম লাকুজি ও এঞ্জেলা জেম

১০ জানুয়ারি ২০২১, ০৬:৪৫ পিএম | আপডেট: ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ১১:৪৮ এএম


বঙ্গবন্ধু ঢাকা ম্যারাথনে সেরা হিসাম লাকুজি ও এঞ্জেলা জেম

স্পোর্টস ডেস্ক:

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২১ অনুষ্ঠিত হয়। রোববার (১০ জানুয়ারি) বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়াম হতে শুরু হয়ে ম্যারাথন শেষ হয় হাতিরঝিলে। পূর্ণাঙ্গ ম্যারাথনে এলিট দৌড়বিদদের মধ্যে পুরুষ বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হন মরক্কোর হিসাম লাকুজি এবং নারী বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হন কেনিয়ার এঞ্জেলা জেম এ্যাসুনদে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। প্রতিযোগিতা শেষে হাতিরঝিলে পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার বিতরণ করেছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

পূর্ণাঙ্গ ম্যারাথনে সার্ক ও দেশি দৌড়বিদদের মধ্যে পুরুষ বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ভারতের বাহাদুর সিং এবং নারী বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন নেপালের পুস্পা ভান্ডারি।

হাফ ম্যারাথনে এলিট দৌড়বিদদের মধ্যে পুরুষ বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হন কেনিয়ার এডুইন কিপ্রোপ এবং নারী বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হন কেনিয়ার নাওম জেবেত। দেশি অংশগ্রহণকারী দৌড়বিদদের মধ্যে মোঃ ফারদিন মিয়া প্রথম স্থান অধিকার করেন।

ফুল এবং হাফ ম্যারাথনে ১০০ জন করে দৌড়বিদ অংশগ্রহণ করেন। ম্যারাথনে অংশগ্রহণকারী এলিট দৌড়বিদদের মধ্যে ফুল ম্যারাথনে ১১ জন পুরুষ, ৬ জন নারী, হাফ ম্যারাথনে ৩ জন পুরুষ এবং ৩ জন নারী অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও দৌড়বিদদের মধ্যে ফুল ম্যারাথনে ১২ জন পুরুষ এবং ৪ জন নারী দৌড়বিদ ম্যারাথনে অংশগ্রহণ করেন।

ম্যারাথনে ফ্রান্স, কেনিয়া, ইথিওপিয়া, বাহরাইন, বেলারুশ, লেসেথো, ইউক্রেন, স্পেন এবং মরক্কো থেকে ২৩ জন এলিট রানার এবং মালদ্বীপ, নেপাল ও ভারত থেকে ১২ জনসহ সর্বমোট ৩৫ জন বিদেশি দৌড়বিদ অংশগ্রহণ করেন।

সেনাবাহিনী প্রধান সমাপনী বক্তব্যের শুরুতে বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহান স্থপতি এবং সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। একই সাথে করোনা মহামারীর মাঝেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২১ আয়োজন এবং দেশকে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২১ বাংলাদেশের সর্বস্তরের জনসাধারনের মাঝে সামাজিক এবং স্বাস্থ্য সচেতনতা সৃষ্টি করবে বলে তিনি আশা করেন। প্রতিবছর ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন আয়োজনের ব্যাপারে তিনি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২১ ম্যারাথন অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল ম্যারাথন অ্যান্ড ডিসটেন্স রেসেস (এইমস) এবং আন্তর্জাতিক অ্যাথলেটিকস অ্যাসোসিয়েশনের (এএএ) কর্তৃক স্বীকৃত। ডিজিটাল ম্যারাথন আগামী ০৭ মার্চ ২০২১ পর্যন্ত চলবে। ডিজিটাল ম্যারাথনে অংশগ্রহণের জন্য ইতোমধ্যে প্রায় দেড় লাখ আবেদন পাওয়া গেছে।


বিভাগ : খেলা


এই বিভাগের আরও