অ্যালকোহল করোনা নয় বরং পানকারীকেই মেরে ফেলতে পারে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

১৭ এপ্রিল ২০২০, ০৮:৫১ পিএম | আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৪২ পিএম


অ্যালকোহল করোনা নয় বরং পানকারীকেই মেরে ফেলতে পারে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
ফাইল ছবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

মহামারি করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে। এই ভাইরাস নিয়ে নানারকম গুজবও ছড়িয়েছে বিশ্বব্যাপী। সে কারণে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস সবাইকে আহব্বান জানিয়েছেন করোনা নিয়ে গুজবের মহামারির বিরুদ্ধেও লড়তে।

 করোনা নিয়ে যেসব গুজব ছড়িয়েছে তার মধ্যে অন্যতম ‘অ্যালকোহল অর্থাৎ মদ পান করলে করোনা ভালো হয়।’ এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ব্যক্তি থেকে ব্যক্তিতে ছড়িয়ে পড়ে। এই গুজবে বিশ্বাস করে অ্যালকোহল পান করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে হাজার হাজার মানুষ মারা গেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও অ্যালকোহল পানের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

জাতিসংঘের বিশেষায়িত সংস্থাটি স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে, অ্যালকোহল মানুষকে করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা করতে পারে না। উপরন্তু মানুষের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে আরো ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেয়। পাশাপাশি নানা ইনজুরি, সহিংসা, পারিবারিক নির্যাতন ও স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি করে। এমনকি অ্যালকোহল পানে বিষক্রিয়া তৈরি হয়ে মানুষের মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। অ্যালকোহল করোনা নয় বরং পানকারীকেই মেরে ফেলতে পারে। তাই হু ইউরোপসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সরকারকে আহব্বান জানিয়েছে অবাধ অ্যালকোহল পানে লাগাম টানতে।

হু জানিয়েছে,এমনিতেই অ্যালকোহল স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হিসেবে পরিচিত। আর এটা সবাই জানে যে অ্যালকোহল পান ইনজুরি ও সহিংসতা বৃদ্ধি করতে পারে। বিশেষ করে পারিবারিক নির্যাতন। এটা থেকে হতে পারে বিষক্রিয়াও। করোনাভাইরাসের এই লকডাউনের সময়ে অ্যালকোহল পান স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে। মানুষের আচরণে পরিবর্তন আনতে পারে। মানসিক স্বাস্থের ক্ষতি হতে পারে। মানুষ হয়ে উঠতে পারে সহিংস। আসলে অ্যালকোহল পান করোনাভাইরাস থেকে মানুষকে রক্ষা করতে পারে না। তাই বিভিন্ন দেশের সরকারের উচিত এটার উৎপাদন ও সরবরাহ কমানোর ক্ষেত্রে পদক্ষেপ নেওয়া।


বিভাগ : বিশ্ব


এই বিভাগের আরও